বিদ্যালয়ের পাখিরালয়ে রকমারি পাখি না দেখতে পেয়ে মন ভারাক্রান্ত ছাত্র- ছাত্রীদের

বিপ্লব চাকী, ইটাহার: উত্তর দিনাজপুরের ইটাহার থানার পতিরাজপুর অঞ্চলের শিবরামপুর উচ্চ বিদ্যালয়।ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা প্রায় ১৬০০। অন্য সব বিদ্যালয় থেকে এই বিদ্যালয়ের আকর্ষণ সম্পূর্ণ ভিন্ন।ছাত্র ছাত্রীদের পঠন পাঠনের একঘেয়েমি কাটাতে এবং তাদেরকে পাখিদের সাথে পরিচয় করানোর লক্ষ্যে একটি পখিরালয় বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে তৈরি করে এলাকায় সাড়া ফেলেছে।

যেহেতু গত ২০২০ সাল থেকে লকডাউন চলছে তাই হতাস ছাত্র ছাত্রীরা।তবে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পাখিদের যেন কোন অসুবিধা না হয় সেই কারনে একজন অশিক্ষক কর্মচারীকে নিযুক্ত করেছেন প্রথম থেকেই দেখভালের জন্য। তবে লক ডাউন এর আগে বিদ্যালয় খোলা থাকলে বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা বিদ্যালয়ে এসে পরাশোনার পাশাপাশি বিদ্যালয়ে পাখিরালয়ে গিয়ে বিভিন্ন ধরনের পাখি দেখে আনন্দ মুখর হলেও, বছর খানেক ধরে লক ডাউনে বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা পাখি দেখতে না পারাই মোন খারাপ বলে জানান বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা, তবে বেশ কিছু দিন ধরেই বিদ্যালয়ের পঠন পাঠন চালু না হলেও বিদ্যালয়ের বিভিন্ন কাজের জন্য অফিস খোলা হয় মাঝে মধ্যে বলে জানান বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাকির হোসেন।

যেদিন যেদিন বিদ্যালয়ে শিক্ষক মহাশয়েরা উপস্থিত হন কাজের জন্য সেদিন সেদিন ছাত্র ছাত্রীরা কেউ বিদ্যালয়ের কোন অফিসের কাজ করে ফাঁক সময় মতো বিদ্যালয়ের পাখিরালয় এসে পাখি দেখে আনন্দ মুখর হয়, আবারো কোন ছাত্র ছাত্রীরা বিদ্যালয়ের গেট খোলা থাকলেই পাখি দেখতে ঢুকে পরে বিদ্যালয়ে, বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা বলেন দীর্ঘ দিন ধরেই পাখিদের না দেখতে পেরে মোন খারাপ লাগছিল তাই বিদ্যালয়ের কিছু কাজ বা বিদ্যালয়ের গেট খোলা থাকলেই পাখি দেখতে আসি তাঁতে খুব ভালো লাগে।

তবে অশিক্ষক কর্মচারী সুব্রত চন্দ্র কর্মকার পাখিদের পরিচর্চা প্রথম থেকেই করে চললেও তিনিও বলেন লক ডাউনে বিদ্যালয় বন্ধ থাকলেও নিয়মিত পাখিদের দেখাশোনা করি বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় ছাত্র ছাত্রীরা না আস্তে পারলেও এখন বিদ্যালয় মাঝে মধ্যে অফিসের কাজে খোলা হলে ছাত্র ছাত্রীরা পাখি দেখতে আসে, তাছাড়া আমাকে নিজেও খুব ভালো লাগে।

তবে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাকির হোসেন বলেন বেশ কয়েক বছর আগে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে পাখিরালয় করা হয়েছে বিভিন্ন ধরনের পাখি রাখা হয়েছে দেখা শোনার জন্য এক জন কমি’ রয়েছে, মূলত ছাত্র ছাত্রীদের কথা মাথায় রেখে পাখিরালয় করা হয়েছে, কেননা গ্রামীণ এলাকার বিদ্যালয় অনেক ছাত্র ছাত্রীরা বিভিন্ন ধরনের পাখিদের সঙ্গে পরিচয় নেই, তাই ছাত্র ছাত্রীদের বিভিন্ন ধরনের পাখি সঙ্গে পরিচয় করা শুধু না বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা বিভিন্ন প্রজাতির পাখি পরিচয় জিবন চরিত্র তুলে ধরেন বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীদের উদ্যোশে, তাঁতে ছাত্র ছাত্রীরা সব দিক থেকেই উপকৃত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *